বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৪৮ অপরাহ্ন




ভোলার চরফ্যাশন নীলকমল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী লিখন চেয়ারম্যান নির্বাচিত

আরব বাংলা টিভি রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ২৫৫ বার পড়া হয়েছে

ভোলা প্রতিনিধি : ভোলার চরফ্যাশনের নীলকমল ইউপি নির্বাচনী আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো: আলমগীর হাওলাদারকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী) ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ইকবাল হোসেন লিখন। উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বার্তায় ২৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় এ ফলাফল জানানো হয়।

প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা যায়, বিজয়ী প্রার্থী ইকবাল হোসেন লিখন পেয়েছেন ৭২৮৭ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো: আলমগীর হাওলাদার পেয়েছেন ৫১৭৫ ভোট। অর্থ্যাৎ ২ হাজার ১১২ ভোটের ব্যবধানে জয় পেয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী লিখন। এ ইউনিয়নের ২৩ হাজার ৬৮২ ভোটের মধ্যে বৈধভাবে ভোট প্রয়োগ করেন ১৩ হাজার ১৭০ জন ভোটার। ইউনিয়নের মোট ১০ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ভোটের ফলাফল হাতে পাওয়ার পর বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়।

ইকবাল হোসেন লিখন বিজীয় হওয়ায় তার কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে উচ্ছ্বাস দেখা দিয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে এলাকায় আনন্দ মিছিলও করেন তার সমর্থকরা।

স্বতন্ত্র প্রার্থী ইকবাল হোসেন লিখনের সমর্থকরা জানিয়েছেন, এলাকার সর্বস্তরের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হওয়ার কারণে তিনি শত বাধা উপেক্ষা করে জয় ছিনিয়ে আনতে পেরেছেন। নির্বাচন প্রক্রিয়ার শুরু থেকে তাকে নৌকার প্রার্থী ও তার কর্মীরা নানাভাবে বাধা দিয়ে থাকেন। বিভিন্ন সময় তার মিছিল ও বৈঠক নৌকার প্রার্থীর লোকেরা হামলা চালায়, এতে বহু মানুষ হতাতহন হন। এমনকি ভোটের দিনও নানাভাবে বাধা ও হামলার শিকার হয়েছিলেন ইকবাল হোসেন লিখন ও তার কর্মী সমর্থকরা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ভোটের দিন সকালে নীলকমল ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডে চর নুরুল আমিন হোসাইনিয়া দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ইকবাল হোসেন লিখনের (মোটরসাইকেল প্রতীক) এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দিয়েছে ও মারধর করেছে আওয়ামী লীগের (নৌকা প্রতীক) প্রার্থী আলমগীর হাওলাদারের সমর্থকরা। এতে বেশ কয়েকজন আহত হন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী লিখনের আহত এজেন্ট মো. কামাল, নূরুন্নবী ও ছালাউদ্দিন জানান, তারা সকালে ভোটকেন্দ্র এলাকায় আসলে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকরা তাদের পথরোধ করে মারধর শুরু করেন। এমনকী তাদের গায়ের শার্টও ছিড়ে ফেলেন তারা। এছাড়া তারা যে যানবাহনে আসেন তার চালককেও মারধর করে নৌকা প্রার্থীর লোকেরা । পরে তারা স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

নীলকমল ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ইকবাল হোসেন লিখন ভোটের দিন সকালে জানান, জনগণ আমার পক্ষে আছে। এজন্য নৌকার প্রার্থী তার উশৃঙ্খল কর্মীদের লাগিয়ে দিয়েছে আমার এজেন্টদের মারধর করতে। পথে পথে তার এজেন্টদের মারধর করার পাশাপাশি কর্মীদের ওপর হামলা চালানোরও অভিযোগও করেন লিখন।



আরো পড়ুন



আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  




© All rights reserved © ArabBanglaTV

Developer Design Host BD