বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

ভোট কিনতে গিয়ে গণপিটুনি খেলেন মেয়র

আরব-বাংলা রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৯ মার্চ, ২০২৪ ৯:৫৩ am

পটুয়াখালী পৌরসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শনিবার (৯ মার্চ) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও মেয়রপ্রার্থী মো. মহিউদ্দিন আহমেদ এবং তার কর্মী-সমর্থকরা শহরের পুরাতন বাজার এলাকায় টাকার বিনিময়ে ভোট কিনতে গিয়ে শুক্রবার (৮ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে গণধোলাই খেয়েছেন।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. জসিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি ঘটনাস্থলে উপস্থিত আছেন।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে টহল জোরদার করেছে র‍্যাব ও পুলিশসহ সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জানা গেছে, পৌর শহরের ৩নং ওয়ার্ডের পুরাতন বাজার এলাকায় টাকা দিয়ে ভোট কেনার সময় ভোটারদের হামলার শিকার হয়েছেন বর্তমান মেয়র ও মেয়রপ্রার্থী মহিউদ্দিন আহমেদ, যুবলীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম সহিদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান হাফিজসহ তাদের কর্মী সমর্থকরা। ঘটনার সময় মহিউদ্দিন আহমেদ ও তার সমর্থকদের সঙ্গে স্থানীয় ভোটারদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের বেশকয়েকজন আহত হয়েছেন।

পুরাতন বাজার এলাকায় একাধিক ভোটার বলেন, বর্তমান মেয়র ও মেয়রপ্রার্থী মহিউদ্দিন আহমেদ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, জেলা যুবলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে অন্তত শতাধিক লোক পুরাতন বাজার এলাকায় প্রবেশ করে। এ সময় হিন্দু ভোটারদের টাকা দিয়ে জগ প্রতীকে ভোট দেওয়ার প্রস্তাব করে। এতে সাধারণ ভোটার রাজি না হলে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তারা। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে তাদের সঙ্গে হাতাহাতি হয়। পরবর্তীতে স্থানীয়রা গিয়ে মহিউদ্দিনের কর্মী-সমর্থকদের অনৈতিক প্রস্তাবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। এতে মেয়র প্রার্থী মহিউদ্দিনের কর্মী সমর্থকরা ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয়দের উপর হামলা চালায়। মুহূর্তেই এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে পুরাতন বাজারের ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা জড়ো হয়ে প্রতিহত করে। সিসিটিভি ফুটেজে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। ঘটনার পরপরই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং পরবর্তী সহিংসতা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করে।

এ ঘটনায় দুই মেয়র প্রার্থী ডা. শফিকুল ইসলাম ও মহিউদ্দিন আহমেদ একে অপরকে দোষারোপ করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

এ নির্বাচনে মেয়র পদে ৫, কাউন্সিলর পদে ৪১ এবং তিনটি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৫ জনসহ ৬১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভার মোট ভোটার ৫০ হাজার ৬৯৯ জন।

শেয়ার করুন

আরো
© All rights reserved © arabbanglatv

Developer Design Host BD