বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন

নির্বাচন সামনে রেখে ষড়যন্ত্রকারীরা সক্রিয় হচ্ছে : সালমান এফ রহমান

আরব-বাংলা রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৫ আগস্ট, ২০২৩ ৪:১৮ pm

নির্বাচনকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীরা আবারও দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) নিজ নির্বাচনী এলাকায় (দোহার-নবাবগঞ্জ) জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত শোক সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

সালমান ফজলুর রহমান বলেন, এ দেশের ভাষা আন্দোলন থেকে স্বাধীনতা আন্দোলন পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ নামক স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হয়েছে। স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশকে পুনর্গঠন এবং অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু যেভাবে নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন তা বিশ্ব দরবারে ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে রয়েছে।

ষড়যন্ত্র ছিল, আছে এবং থাকবে উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, সকল ষড়যন্ত্রকারীদের মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলার জন্য সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী মাত্র সাড়ে তিন বছরের দায়িত্বকালে বাংলাদেশের ভিত্তিপ্রস্তর রচনা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের হাতে সপরিবারে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন তিনি। ষড়যন্ত্রকারীরা এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশকে হত্যা করতে চেয়েছিল।

তিনি বলেন, সেদিন ভাগ্যক্রমে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোট বোন শেখ রেহানা বিদেশে অবস্থান করায় ঘাতকের হাত থেকে বেঁচে যান। তাই তো জাতির জনককে হত্যার পরও তার স্বপ্নের সোনার বাংলার পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন এবং এ দেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামালের শৈশবের বন্ধু সালমান এফ রহমান স্মৃতিচারণ করে বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব একদিকে যেমন শেখ মুজিবুর রহমানকে বিভিন্ন সুপরামর্শ দিতেন অন্যদিকে তার পরিবারের প্রতিটি সন্তানকে সুসন্তান হিসেবে গড়ে তুলতে সব ধরনের দায়িত্বও পালন করে যেতেন।

স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের অর্থনীতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা বলেন, ১৯৭১ সালে বৈদেশিক রিজার্ভ ছিল শূন্য। সে সময় অন্য দেশের সঙ্গে বিনিময় প্রথার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি শুরু করে সরকার। পাট ও চামড়া ছিল বাংলাদেশের বিনিময় পণ্য। তবে ২০০৯ সাল থেকে আওয়ামী লীগ টানা ক্ষমতায় থাকায় আজ দেশের রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ২৯৭৩২.১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেল উল্লেখ করে উন্নয়নকে অব্যাহত রাখতে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান তিনি।

শেয়ার করুন

আরো
© All rights reserved © arabbanglatv

Developer Design Host BD