বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

নাইকো মামলায় বিদেশি সাক্ষীদের বিষয়ে যা বললেন অ্যাটর্নি জেনারেল

আরব-বাংলা রিপোর্ট:
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ১১:১৭ am

অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা নাইকো দুর্নীতি মামলায় সাক্ষী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার তিন বিদেশি কর্মকর্তা সাক্ষ্য দিতে আসবেন। তাদের সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য বিশেষ জজ আদালত অনুমতি দিয়েছেন। তবে, তারা কারো পক্ষে কিংবা বিপক্ষে বলবেন না।

রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, নাইকো মামলার তদন্ত চলার সময় বিদেশে এফবিআই ও কানাডিয়ান পুলিশ তদন্ত করে। মিউচ্যুয়াল লিগ্যাল অ্যাসিস্টেন্সের মাধ্যমে তারা তদন্ত প্রতিবেদন আমাদের কাছে পাঠিয়েছেন ।

তিনি বলেন, নাইকো দুর্নীতি মামলায় ২০১৮ সালে একটি আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনে বিদেশি তিন কর্মকর্তার নাম ছিল না। পরে নামসহ সম্পূরক দরখাস্ত দিয়েছিলাম। দুই পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আবেদনটি গ্রহণ করেছেন। এখন একজন আমেরিকা থেকে আসবেন। আর দুইজন কানাডা থেকে সাক্ষ্য দিতে আসবেন। তবে, কবে আসবেন সে দিন এখনও ঠিক হয়নি।

অ্যাটর্নি জেনারেল আরও বলেন, আগত বিদেশিরা কারও পক্ষে বলবেন না। তদন্তে যা পেয়েছেন তাই বলবেন। তাদের তদন্ত ২০১৮ সালেই এফিডেভিট করে আদালতে জমা দিয়েছি।

এর আগে, রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯-এর বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান বিদেশি তিন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের আবেদন মঞ্জুর করে আদেশ দেন। এর মধ্যে একজন এফবিআই কর্মকর্তা ডেব্রা ল্যাপ্রেভোট গ্রিফিথ। আর দু’জন কানাডার পুলিশ কর্মকর্তা কেবিন দুগ্গান ও লয়েড শোয়েপ।

আজ আদালতে এই তিনজনকে সাক্ষী হিসেবে উপস্থাপন করতে সমন ইস্যুর আবেদন করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে তিনি আবেদনের বিষয়ে শুনানি করেন।

খালেদা জিয়ার পক্ষের আইনজীবী আমিনুল ইসলাম অ্যাটর্নি জেনারেলের আবেদনের বিরোধিতা করে বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল সারাদেশের সব মামলায় শুনানিতে উপস্থিত থাকতে পারেন। কিন্তু তার আবেদন করার এখতিয়ার নেই। আমরা এর বিরোধিতা করছি। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি শেষে তিন বিদেশি সাক্ষীর সাক্ষ্য দেওয়ার আবেদন মঞ্জুর করেন।

এ মামলায় গত ১২ সেপ্টেম্বর মামলার বাদী মাহবুবুল আলম তার জবানবন্দি শেষ করেন। এরপর আসামি গিয়াস উদ্দিন আল মামুন ও সেলিম ভূঁইয়ার পক্ষে তাদের আইনজীবী জেরা শেষ করেন। এরপর অন্যদের পক্ষে জেরার জন্য আজকের দিন ধার্য করা হয়। গত ১৯ মার্চ এই মামলায় চার্জ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। এরপর গত ২৩ মে আদালতে সাক্ষ্য দেন মামলার বাদী দুদকের তৎকালীন সহকারী পরিচালক মাহবুবুল আলম। তবে, মামলার চার্জ গঠনের বৈধতার প্রশ্নে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। তাই ২২ আগস্ট এই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি। পরে ৩০ আগস্ট বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আমিনুল ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ সেই আবেদন খারিজ করে দেন।

শেয়ার করুন

আরো
© All rights reserved © arabbanglatv

Developer Design Host BD